Home খেলার খবর এশিয়া কাপ নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলির কথার ভিত্তি নেই : পিসিবি

এশিয়া কাপ নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলির কথার ভিত্তি নেই : পিসিবি

by Newsroom
এবারের

ঢাকা: করোনা পরিস্থিতিতে এশিয়া কাপ নিয়ে অনিশ্চয়তা ছিলো। সূচি অনুযায়ী ৬ দলের এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল সেপ্টেম্বরে এবং টি-টোয়েন্টি সংস্করণে। ৮ জুলাই বুধবার সৌরভ গাঙ্গুলি ৪৮ তম জন্মদিন উপলক্ষে সাক্ষাৎকার ছাপিয়েছে কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা। সেখানেই তার কাছে প্রশ্ন করা হয়েছিল- বিদেশে ফুটবল শুরু হয়েছে, ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট শুরু হচ্ছে বুধবার থেকে। কবে নাগাদ বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মাদের ফের মাঠে দেখা যেতে পারে? এশিয়া কাপে?

জবাবে তিনি বলেছেন, ‘এশিয়া কাপ বাতিল হয়ে গিয়েছে। এ বারে আর হচ্ছে না। আমরা আইসিসির সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি। একই দিনে গাঙ্গুলি ইনস্টাগ্রামে এক লাইভ শো তে এশিয়া কাপ বাতিলের ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘এশিয়া কাপ বাতিল, যেটা সেপ্টেম্বরে হওয়ার কথা ছিলো।’

এদিকে এশিয়া কাপের আয়োজক দেশ পাকিস্তান গাঙ্গুলির মন্তব্যকে পাত্তা দিচ্ছে না। কারণ এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) এসিসি ও বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান বর্তমানে ইংল্যান্ডে চিকিৎসাধীন আছেন। এশিয়া কাপের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারেন একমাত্র তিনিই।

৮ জুলাই বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে এটি নিয়ে এখনো কিছু শুনিনি। বিসিবি সভাপতি (তিনি এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলেরও সভাপতি) লন্ডনে আছেন। তাঁর আজ অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা। এ মুহূর্তে তাঁর সঙ্গে কথা বলার সুযোগ নেই। তবে আমরাও শুনেছি টুর্নামেন্টটা এ বছর যথা সময়ে আয়োজন নিয়ে যথেষ্ট সংশয় আছে।’

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া প্রধান সামিউল হাসানও একই কথা বললেন, ‘সৌরভ যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা কোন প্রভাব ফেলবে না। যদি সে প্রতি সপ্তাহে এমন মন্তব্য করে, তাহলে কথার কোন মূল্য থাকে না। এশিয়া কাপের সিদ্ধান্ত এসিসি নেবে। ঘোষণাটা একমাত্র এসিসি প্রধান নাজমুল হাসান দিতে পারেন। আমার জানা মতে, আগামী এসিসি বৈঠকের দিনক্ষণ এখনো নির্ধারণ হয়নি।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েও ইতিবাচক নন সৌরভ। কাল তিনি বলেছেন, ‘টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত হওয়ার কথাও তাড়াতাড়িই জানা যাবে। কেননা, সব দেশ আইসিসির কাছে নির্দেশিকা চাইছে। আমরা ইতিমধ্যেই জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে এসে পৌঁছেছি। আমার মন বলছে টি-২০ বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব নয়।’

এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হলে আইপিএলের দুয়ার খুলে যাবে ভারতের। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আইপিএল আয়োজন করতে চাইবে ভারত। এ প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, ‘আমরা আইপিএল আয়োজনের জন্য সবরকম চেষ্টা করব। এটা ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। চেষ্টা করব টুর্নামেন্ট ভারতেই আয়োজন করার।’

প্রতিবেদক/ডিএইচ

You may also like