Home বিশ্ব পুলিশকে ফাঁকি দিতে গিলে ফেলত চুরি করা সোনা!

পুলিশকে ফাঁকি দিতে গিলে ফেলত চুরি করা সোনা!

by Shohag Ferdaus
সোনা

পেটে ব্যথা নিয়ে চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রোগী। রোগীর দাবি তার হার্নিয়ার ব্যথা, ওষুধ খেয়েও উপশম হয়নি। পেটের এক্সরে করতেই চক্ষু চড়কগাছ চিকিৎসকদের। রোগীর পেটে সোনার খনি! কীভাবে এল এত সোনা?

ঘটনাটি ভারতের কর্ণাটকের। একটি সোনার দোকানে লুঠপাটের ঘটনায় শিবু ও ম্যাথু নামে দু’জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

মজার বিষয় হলো গ্রেপ্তারির পরও চুরি যাওয়া কোনও মালামাল উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। ধৃত দু’জনকে পুলিশ হেফাজতে রেখে চলছিল জিজ্ঞাসাবাদ। কিন্তু কোনও চোরাই মালের হদিশ মিলছিল না।

রাতে অসম্ভব পেটে যন্ত্রণা শুরু হয় শিবুর। সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। শিবু বারবার ডাক্তারদের বলে, হার্নিয়ার ব্যথা হচ্ছে। কিন্তু ওষুধ খেয়েও ব্যথা সারেনি তার। এর পরই পেটের এক্সরে করা করা হয়। এক্সরে রিপোর্টে দেখা যায়, শিবুর পেটে সোনার ‘খনি’। পেটে তিন প্যাকেট সোনা ভরতি। কী করে পেটে গেল এত সোনা?

জিজ্ঞাসাবাদ করতেই প্রকাশ্য আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। শিবু স্বীকার করে চুরির মাল লুকাতে আইসক্রিমের সঙ্গে মিশিয়ে সোনা গিলে ফেলত সে। পরে তা বের করে আনত।

সাধারণত, পুলিশ তাদের ধরলে বাড়ি কিংবা পকেটে তল্লাশি করত। কিন্তু পেটের ভিতরে সোনা লুকিয়ে থাকতে পারে তা ঘুণাক্ষরেও ভাবেননি পুলিশ আধিকারিকরা। এদিন শিবুর পেট থেকে ৩০টি সোনার আংটি এবং কানের দুল উদ্ধার হয়। যার ওজন ৩৫ গ্রাম।

ভয়েস টিভি/এসএফ

You may also like