Home সারাদেশ চাকুরির সুবাদে প্রেম অতঃপর ধর্মান্তর, বিয়ের পর প্রতারণা!

চাকুরির সুবাদে প্রেম অতঃপর ধর্মান্তর, বিয়ের পর প্রতারণা!

by Amir Shohel

একই প্রতিষ্ঠানে চাকুরির সুবাধে পরিচয়। এরপর দু’জনার মধ্যে চেনাজানার পর
প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে হয় বিয়ে। কিন্তু
তারপরই ঘটে আসল ঘটনা। ভাড়া বাসায় দীর্ঘদিন সংসারের পর গা ঢাকা দিয়ে
প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে মো. সাজু মিয়া নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। সাজু
মিয়া চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের দাফাদার পাড়া এলাকার আমির
উদ্দীনের ছেলে।

প্রতারিত তরুণী ললিতা খান সাংবাদিকদের অভিযোগ করে বলেন, গাজিপুরের
কোনাবাড়ীতে একই প্রতিষ্ঠানে চাকুরির সুবাধে পরিচয় হয় সাজু মিয়ার সাথে।
এরপর প্রায় দেড় বছর প্রেমের পর ২০১৬ সালে ধর্মান্তরিত করে তাকে বিয়ে করেন সাজু। এরপর গাজিপুর কোনা বাড়িতে একটি ভাড়া বাসায় তাকে রেখে গ্রামের বাড়ি চিলমারী এসে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় সাজু।

পরে জাতীয় পরিচয় পত্রের সূত্র ধরে সাজু মিয়ার গ্রামের বাড়ী চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের দাফাদার পাড়া এলাকায় শুক্রবার আসেন তিনি স্ত্রীর দাবি নিয়ে। এ সময় শুশুর বাড়ির লোকজনের হাতে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন।

প্রতারিত কিশোরী ললিতা খান আরও বলেন, আমি ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।
ধর্মান্তরিত হয়ে আমি আমার বাবা মাকে হারিয়ে এতিম হয়েছি। ওর কাছে আশ্রয়
নিয়েছিলাম ভালো থাকবো বলে। কিন্তু ও আমার অসহায়ত্বকে নিয়ে প্রতারিত
করেছে, আমি আমার গর্ভের সন্তানের পিতৃত্বের পরিচয় চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাজু মিয়ার সাথে বিভিন্ন ভাবে যোগাযোগের চেষ্টা করা
হলেও তার দেখা ও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মোনায়েম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,
আমরা স্থানীয় ভাবে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করেছি। ছেলের পক্ষ থেকে সাড়া
পাওয়া যায়নি। তিনি ধর্মান্তরিত মেয়েটি যাতে স্বামী-সংসারের অধিকার পায় এ
জন্য সবার সহযোগিতা চান।

এ বিষয়ে চিলমারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি যেহেতু পারিবারিক তাই আদালতে গেলেই ভালো হবে।

ভয়েসটিভি/এএস

You may also like