Home খেলার খবর গোল করার চিন্তা নেই লিওনেল মেসির

গোল করার চিন্তা নেই লিওনেল মেসির

by Newsroom
গার্দিওলার

গোল করার চিন্তা থেকে ফিরে এসেছেন লিওনেল মেসি। তবে এখন তার সব মনোযোগ গোল করানোর দিকেই।

গোলের পর গোল করে রেকর্ডের খাতা শুধু বড়ই করেছেন। গতবারও জিতেছেন স্প্যানিশ লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার পিচিচি ট্রফি। এছাড়া ইউরোপের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার গোল্ডেন শু’ও জিতেছেন ছয়বার।

তবে মাঠে নামলেই গোল করতে হবে, সেই নেশাটা আগের মতো আর নেই মেসির। ক্লাব বার্সেলোনা হোক কিংবা জাতীয় দল আর্জেন্টিনা, মেসি জানালেন-গোল নিয়ে মাথাব্যথা নেই তার। বরং ক্যারিয়ারের এই পর্যায়ে এসে একজন ‘টিম প্লেয়ার’ হতে চান।

বার্সার ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি। ৭৩৪ ম্যাচে করেছেন ৬৩৫ গোল। সেইসঙ্গে আছে ২৫৬টি অ্যাসিস্টও। আর্জেন্টিনার জার্সিতেও তার গোলের রেকর্ড সমৃদ্ধ। সেখানেও গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে, ১৩৯ ম্যাচে করেছেন ৭১ গোল। যার সর্বশেষটি এসেছে ইকুয়েডরের বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে।

তবে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের সর্বশেষ ম্যাচে দল জিতলেও বলিভিয়ার বিপক্ষে জালের দেখা পাননি মেসি। চলতি মৌসুমে বার্সার হয়ে তিন ম্যাচে করেছেন মাত্র এক গোল। তাই আবারও প্রশ্ন উঠছে, মেসির সেই ফর্মটা কি আর নেই!

স্প্যানিশ ম্যাগাজিন ‘গারজান্ডা পেদোরোসা’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আর্জেন্টাইন খুদেরাজ রাখঢাক না করেই বললেন, আমি আর এখন গোল নিয়ে ভাবি না। আমি চাই দলের জন্যে যতটা পারা যায় অবদান রাখতে। আমার কাছে দলের প্রয়োজনই সবার আগে।

আরও পড়ুন: শিগগিরই প্রকাশ হবে ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল

গত মৌসুমে সতীর্থদের দিয়ে ২১ গোল করিয়ে এমনকি লা লিগার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্টের রেকর্ডও গড়েছেন তিনি।

শুধু মাঠের খেলাই নয়, করোনার এই সময়টায় মাঠের বাইরের কঠিন পৃথিবীর খোঁজও রাখছেন মেসি। ১ মিলিয়ন ইউরো দান করেছেন বার্সেলোনা ও আর্জেন্টিনার হাসপাতালে। কঠিন এই সময়টায় আর্জেন্টিনায় কিছু মানুষ যেভাবে অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছে, তাতে জন্মভূমির প্রশংসাই করলেন বার্সা সুপারস্টার। তিনি মনে করেন, এই সময়টায় সবাই মিলেই কাজ করা উচিত।

মেসির মতে, ‘বৈষম্য হচ্ছে সবচেয়ে বড় সমস্যা। বৈষম্য নিরসনে সবার একসঙ্গে কাজ করা উচিত। এই করোনাকালে পানি, বিদ্যুৎ এবং পর্যাপ্ত খাবার নিশ্চিত করতে হবে।

যারা আর্জেন্টিনায় অসহায় মানুষদের সহায়তায় এগিয়ে আসছেন তাদের প্রশংসা করে তিনি বলেন, এ বছর জেতা সব শিরোপাগুলো করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সঙ্গে জড়িতদের প্রতি উৎসর্গ করা উচিত। ‘

ভয়েস টিভি/এমএইচ

You may also like